জুন ২০, রবিবার, ২০২১

হীরামন

একটি অনুজ অনলাইন ম্যাগাজিন(০ থেকে ১৭ বছরের শিশু-কিশোরদের জন্য )

এই ছড়াটা নাম না জানা সেই শহিদের নামে

–লুৎফর রহমান রিটন

বাংলাদেশের স্বাধীনতা শহিদ ছেলের দান
কে লিখেছে বাংলাদেশের স্বাধীনতার গান?
স্বাধীনতার গানগুলো লাল রক্তে হলো লেখা
রক্ত সাগর পেরিয়ে পেলাম স্বাধীনতার দেখা।

আজ সকালে ফুটল কতো লক্ষ হাজার ফুল
মাতাল করা উতল হাওয়া বইছে হুলুস্থুল।
পাখির ঠোঁটে আজকে যতো আকুল করা সুর
রাখাল ছেলের মোহন বাঁশি বাজছে সুমধুর।
ফুলের সুবাস পাখির গানে অন্যরকম দিন
শহিদ ছেলের মা জননীর মুখ কেনো মলিন?
কোথাও লেখা নেই বুঝি তোর সেই ছেলেটার নাম?
দ্যাখ চেয়ে মা এই কবিতায় ঠিক লিখে রাখলাম।

এই কবিতার পঙ্ক্তিতে তোর শহিদ ছেলের ঘ্রাণ
এই কবিতার বর্ণে বর্ণে তাঁরই আত্মদান।
এই কবিতার ছত্রে ছত্রে তাঁরই অহংকার
তোর ছেলে মা বাংলা মায়ের শ্রেষ্ঠ অলংকার।
তোর ছেলে মা ঘুমিয়ে আছে বাংলা মায়ের কোলে
তোর ছেলে মা ওই পতাকায় কী আলোড়ন তোলে!
তোর ছেলে মা আজ একাকার মাটির সাথে মিশে
তোর ছেলে মা ঢেউ খেলানো সবুজ ধানের শীষে।

রোজ প্রতিদিন তোর ছেলেটাই সূর্য হয়ে ওঠে
রোজ প্রতিদিন তোর ছেলেটাই শাপলা হয়ে ফোটে।
তোর ছেলেটাই পূর্ণিমা মা তোর ছেলেটাই চাঁদ
তোর ছেলে মা পায় প্রতিদিন মেঘের আশীর্বাদ।
রোদের আদর পায় প্রতিদিন পায় শিশিরের চুমো
লক্ষ্মী মা তুই কাঁদিস না আর, এবার একটু ঘুমো।

স্বাধীনতা কিনতে হলো অনেক প্রাণের দামে
এই ছড়াটা নাম না জানা সেই শহিদের নামে।